(45 سَيُهْزَمُ الْجَمْعُ وَيُوَلُّونَ الدُّبُرَ

এ দল তো সত্ত্বরই পরাজিত হবে এবং পৃষ্ঠপ্রদর্শন করবে।

Soon will their multitude be put to flight, and they will show their backs.

(46 بَلِ السَّاعَةُ مَوْعِدُهُمْ وَالسَّاعَةُ أَدْهَى وَأَمَرُّ

বরং কেয়ামত তাদের প্রতিশ্রুত সময় এবং কেয়ামত ঘোরতর বিপদ ও তিক্ততর।

Nay, the Hour (of Judgment) is the time promised them (for their full recompense): And that Hour will be most grievous and most bitter.

(47 إِنَّ الْمُجْرِمِينَ فِي ضَلَالٍ وَسُعُرٍ

নিশ্চয় অপরাধীরা পথভ্রষ্ট ও বিকারগ্রস্ত।

Truly those in sin are the ones straying in mind, and mad.

(48 يَوْمَ يُسْحَبُونَ فِي النَّارِ عَلَى وُجُوهِهِمْ ذُوقُوا مَسَّ سَقَرَ

যেদিন তাদেরকে মুখ হিঁচড়ে টেনে নেয়া হবে জাহান্নামে, বলা হবেঃ অগ্নির খাদ্য আস্বাদন কর।

The Day they will be dragged through the Fire on their faces, (they will hear:) “Taste ye the touch of Hell!”

(49 إِنَّا كُلَّ شَيْءٍ خَلَقْنَاهُ بِقَدَرٍ

আমি প্রত্যেক বস্তুকে পরিমিতরূপে সৃষ্টি করেছি।

Verily, all things have We created in proportion and measure.

(50 وَمَا أَمْرُنَا إِلَّا وَاحِدَةٌ كَلَمْحٍ بِالْبَصَرِ

আমার কাজ তো এক মুহূর্তে চোখের পলকের মত।

And Our Command is but a single (Act),- like the twinkling of an eye.

(51 وَلَقَدْ أَهْلَكْنَا أَشْيَاعَكُمْ فَهَلْ مِن مُّدَّكِرٍ

আমি তোমাদের সমমনা লোকদেরকে ধ্বংস করেছি, অতএব, কোন চিন্তাশীল আছে কি?

And (oft) in the past, have We destroyed gangs like unto you: then is there any that will receive admonition?

(52 وَكُلُّ شَيْءٍ فَعَلُوهُ فِي الزُّبُرِ

তারা যা কিছু করেছে, সবই আমলনামায় লিপিবদ্ধ আছে।

All that they do is noted in (their) Books (of Deeds):

(53 وَكُلُّ صَغِيرٍ وَكَبِيرٍ مُسْتَطَرٌ

ছোট ও বড় সবই লিপিবদ্ধ।

Every matter, small and great, is on record.

(54 إِنَّ الْمُتَّقِينَ فِي جَنَّاتٍ وَنَهَرٍ

খোদাভীরুরা থাকবে জান্নাতে ও নির্ঝরিণীতে।

As to the Righteous, they will be in the midst of Gardens and Rivers,

(55 فِي مَقْعَدِ صِدْقٍ عِندَ مَلِيكٍ مُّقْتَدِرٍ

যোগ্য আসনে, সর্বাধিপতি সম্রাটের সান্নিধ্যে।

In an Assembly of Truth, in the Presence of a Sovereign Omnipotent.

 

55) সূরা আর রহমান – Surah Ar-Rahman (মদীনায় অবতীর্ণ – Ayah 78)

بِسْمِ اللّهِ الرَّحْمـَنِ الرَّحِيمِ শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

 

 

(1
الرَّحْمَنُ
করুনাময় আল্লাহ।
((Allah)) Most Gracious!


(2
عَلَّمَ الْقُرْآنَ
শিক্ষা দিয়েছেন কোরআন,
It is He Who has taught the Qur’an.


(3
خَلَقَ الْإِنسَانَ
সৃষ্টি করেছেন মানুষ,
He has created man:


(4
عَلَّمَهُ الْبَيَانَ
তাকে শিখিয়েছেন বর্ণনা।
He has taught him speech (and intelligence).


(5
الشَّمْسُ وَالْقَمَرُ بِحُسْبَانٍ
সূর্য ও চন্দ্র হিসাবমত চলে।
The sun and the moon follow courses (exactly) computed;


(6
وَالنَّجْمُ وَالشَّجَرُ يَسْجُدَانِ
এবং তৃণলতা ও বৃক্ষাদি সেজদারত আছে।
And the herbs and the trees – both (alike) bow in adoration.


(7
وَالسَّمَاء رَفَعَهَا وَوَضَعَ الْمِيزَانَ
তিনি আকাশকে করেছেন সমুন্নত এবং স্থাপন করেছেন তুলাদন্ড।
And the Firmament has He raised high, and He has set up the Balance (of Justice),


(8
أَلَّا تَطْغَوْا فِي الْمِيزَانِ
যাতে তোমরা সীমালংঘন না কর তুলাদন্ডে।
In order that ye may not transgress (due) balance.


(9
وَأَقِيمُوا الْوَزْنَ بِالْقِسْطِ وَلَا تُخْسِرُوا الْمِيزَانَ
তোমরা ন্যায্য ওজন কায়েম কর এবং ওজনে কম দিয়ো না।
So establish weight with justice and fall not short in the balance.


(10
وَالْأَرْضَ وَضَعَهَا لِلْأَنَامِ
তিনি পৃথিবীকে স্থাপন করেছেন সৃষ্টজীবের জন্যে।
It is He Who has spread out the earth for (His) creatures:


(11
فِيهَا فَاكِهَةٌ وَالنَّخْلُ ذَاتُ الْأَكْمَامِ
এতে আছে ফলমূল এবং বহিরাবরণবিশিষ্ট খর্জুর বৃক্ষ।
Therein is fruit and date-palms, producing spathes (enclosing dates);


(12
وَالْحَبُّ ذُو الْعَصْفِ وَالرَّيْحَانُ
আর আছে খোসাবিশিষ্ট শস্য ও সুগন্ধি ফুল।
Also corn, with (its) leaves and stalk for fodder, and sweet-smelling plants.


(13
فَبِأَيِّ آلَاء رَبِّكُمَا تُكَذِّبَانِ
অতএব, তোমরা উভয়ে তোমাদের পালনকর্তার কোন কোন অনুগ্রহকে অস্বীকার করবে?
Then which of the favours of your Lord will ye deny?