জান্নাতে নারীরা কি হুর পাবেন?

জান্নাতে পুরুষ হুর পাবে এইজন্য অনেক বোনেরা নিজে চিন্তিত হয়ে পড়েন যে তাদের জন্য হুর আছে কিনা আজকে এ বিষয় নিয়ে আলোচনা করব।
জান্নাতে থাকে উত্তম চরিত্রের সুন্দরীগণ।(রাহমান)
এইখানে শুধু জান্নাতের নারীর কথা বলা হয় নি বরং যেসব দুনিয়ার নারী জান্নাতে প্রবেশ করবে তাদের চরিত্রও হবে উত্তম এবং চেহারা হবে অত্যন্ত সুন্দর। তাঁবুতে থাকবে সুরক্ষিত হুর।(রাহমান)
আল্লাহ কোরআনে ৪ জায়গায় হুরের কথা উল্লেখ করেছেন কিন্তু কোথাও বলেন নি যে,জান্নাতি হুর শুধুমাত্র পুরুষরাই পাবে বরং বলেছেন যে যারা মুমিন তাদের জন্য হুরের ব্যবস্থা থাকবে অর্থাৎ পুরুষদের মতো নারীদের জন্যও হুর থাকবে তবে সেই হুর কেমন হবে তা আল্লাহ তায়ালা কোরআনে উল্লেখ করেন নি কেননা নারীরা লাজুক প্রকৃতির তাই কোরআনে পুরুষ হুরের বর্ননা থাকলে তারা হয়ত নিজেরাই লজ্জিত হয়ে যেত তাই আল্লাহ তায়ালা নারীদেরকে লজ্জিত করতে চাননি তাই এই আলাদা ভাবে পুরুষ হুরের কথা উল্লেখ না করে তিনি হুরের কথা উল্লেখ করেছেন।
অতএব,তোমরা উভয়ে তোমাদের প্রতিপালকের কোন কোন নিয়ামত অস্বীকার করবে?(রাহমান)
এখানে উভয় দ্বারা কিন্তু শুধু পুরুষ বুঝায় না বরং নারী এবং পুরুষ উভয় শ্রেণিরই মানুষ এবং জ্বীন জাতি বোঝাচ্ছে।এটাকে কেউ অস্বীকার করে বলতে পারবে না যে,এইখানে উভয় দ্বারা আল্লাহ তায়ালা পুরুষ বুঝিয়েছেন।
মুত্তাকীদের জন্য থাকবে তাদের পুরস্কার স্বরুপ হুর।(ওয়াকিয়া)
মুত্তাকী তো শুধু পুরুষ হয় না বরং নারীও মুত্তাকী হয়।আর আল্লাহ যতবার মুমিন পুরুষের কথা উল্লেখ করেছেন ততবার মুমিন নারীর কথাও উল্লেখ করেছেন আবার জান্নাতে প্রবেশের ক্ষেত্রেও আল্লাহ তায়ালা এমনকি জান্নাতের পুরস্কার হিসেবেও আলাদা করে শুধু পুরুষ পুরস্কার হিসেবে হুর পাবে তা মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কোরআনে বলেন নি।তাই বলা যায় যে,জান্নাতে নারী পুরুষ উভয়ই সমান প্রতিদান এবং পুরস্কার পাবে এটাই
সত্য তাই আল্লাহ তায়ালা বলেছেন যে,
যে মুমিন অবস্থায় সৎকাজ করবে সে নারী হোক বা পুরুষ হোক তাকে আমি দুনিয়ায় প্রশান্তিময় পবিত্র জীবন এবং জান্নাতে নেক আমলের বিনিময়ে উত্তম জীবন দান করব।(নাহল-৯৭)
যে ঈমান আনে এবং সৎকর্ম করে তবে সে জান্নাতে প্রবেশ করবে এবং বিন্দুমাত্রও জুলুমের শিকার হবে না আর তাদের জন্য থাকবে পবিত্র সঙ্গী।(নিসা-১২৪)
জান্নাতের আটটি দরজার যেকোন দরজা দিয়ে ইচ্ছে মুমিন নারী প্রবেশ করতে পারবে নিম্নোক্ত কাজ করতে পারলে-
১।পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে
২।রমজানের রোজা রাখলে
৩।লজ্জাস্থানের হেফাজত করলে
৪।স্বামীর আনুগত্য করলে
নিশ্চয়ই ঈমানদার নারী জান্নাতে প্রবেশ করার পর জান্নাতের নারী হুরদের থেকেও ৭০ হাজার গুণ বেশি সুন্দরী এবং উত্তম হবে।(আত্তাজ-কিরাহ্,পৃষ্ঠা-৫৫৬)
জান্নাতে যেসব নারী প্রবেশ করবে তাদেরকে আল্লাহ তায়ালা জান্নাতি নারী হুরদের উপর শ্রেষ্ঠত্ব দান করবেন আর নিজ চেহারার নূর ঢেলে দিবেন,তাদেরকে রেশমের ও জাফরানের পোশাক পরিধান করাবেন,স্বর্নের আংটি পরিধান করাবেন এবং মেশকে আম্বর দিয়ে ভরিয়ে দিবেন।(তাবারানি)
নিশ্চয়ই যে নারী তার স্বামীকে আল্লাহর রাস্তায় পাঠায়,নিজেকে হেফাজত করে ও ঘরে থাকে তবে সে জান্নাতের নারী হুরদের রাণী হবে।তাকে জান্নাতে গোসল দেয়া হবে আর তারপর তারা ঘোড়ায় সওয়ার করে তার স্বামীর জন্য অপেক্ষা করবে।(আল-হাদিস)
ক্রেডিট: উঞ্জিলা ফেরদৌস সুস্মিতা

আইডিসির সাথে যোগ দিয়ে উভয় জাহানের জন্য ভালো কিছু করুন!

 

আইডিসি এবং আইডিসি ফাউন্ডেশনের ব্যপারে  জানতে  লিংক০১ ও লিংক০২ ভিজিট করুন।

আইডিসি  মাদরাসার ব্যপারে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন। 

আপনি আইডিসি  মাদরাসার একজন স্থায়ী সদস্য /পার্টনার হতে চাইলে এই লিংক দেখুন.

আইডিসি এতীমখানা ও গোরাবা ফান্ডে দান করে  দুনিয়া এবং আখিরাতে সফলতা অর্জন করুন।

কুরআন হাদিসের আলোকে বিভিন্ন কঠিন রোগের চিকিৎসা করাতেআইডিসি ‘র সাথে যোগাযোগ করুন।

ইসলামিক বিষয়ে জানতে এবং জানাতে এই গ্রুপে জয়েন করুন।

 

Islami Dawah Center Cover photo

 

ইসলামী দাওয়াহ সেন্টারকে সচল রাখতে সাহায্য করুন!

 

ইসলামী দাওয়াহ সেন্টার ১টি অলাভজনক দাওয়াহ প্রতিষ্ঠান, এই প্রতিষ্ঠানের ইসলামিক ব্লগটি বর্তমানে ২০,০০০+ মানুষ প্রতিমাসে পড়ে, দিন দিন আরো অনেক বেশি বেড়ে যাবে, ইংশাআল্লাহ।

বর্তমানে মাদরাসা এবং ব্লগ প্রজেক্টের বিভিন্ন খাতে (ওয়েবসাইট হোস্টিং, CDN,কনটেন্ট রাইটিং, প্রুফ রিডিং, ব্লগ পোস্টিং, ডিজাইন এবং মার্কেটিং) মাসে গড়ে ৫০,০০০+ টাকা খরচ হয়, যা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং। সেকারনে, এই বিশাল ধর্মীয় কাজকে সামনে এগিয়ে নিতে সর্বপ্রথম আল্লাহর কাছে আপনাদের দোয়া এবং আপনাদের সহযোগিতা প্রয়োজন, এমন কিছু ভাই ও বোন ( ৩১৩ জন ) দরকার, যারা আইডিসিকে নির্দিষ্ট অংকের সাহায্য করবেন, তাহলে এই পথ চলা অনেক সহজ হয়ে যাবে, ইংশাআল্লাহ।

যারা এককালিন, মাসিক অথবা বাৎসরিক সাহায্য করবেন, তারা আইডিসির মুল টিমের অন্তর্ভুক্ত হয়ে যাবেন, ইংশাআল্লাহ।

আইডিসির ঠিকানাঃ খঃ ৬৫/৫, শাহজাদপুর, গুলশান, ঢাকা -১২১২, মোবাইলঃ +88 01609 820 094, +88 01716 988 953 ( নগদ/বিকাশ পার্সোনাল )

ইমেলঃ info@islamidawahcenter.com, info@idcmadrasah.com, ওয়েব: www.islamidawahcenter.com, www.idcmadrasah.com সার্বিক তত্ত্বাবধানেঃ হাঃ মুফতি মাহবুব ওসমানী ( এম. এ. ইন ইংলিশ, ফার্স্ট ক্লাস )